• 163

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে প্রত্যাশা

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে প্রত্যাশা

কয়েক ঘণ্টা বাদেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে যাচেছন দেশটির সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বুধবার রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিন কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে শপথ নিবেন তিনি। নির্বাচনে তার বিজয়ের পর থেকেই ভালকিছুর প্রত্যাশা করছেন বিশ্ববাসী। কেননা জো বাইডেন কোনো ইস্যুতেই ডোনাল ট্রাম্পের মতো উগ্রতা দেখাচ্ছেন না। বরং বলছেন সাম্যের কথা। তাই তার কাছে পৃথিবীর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ প্রত্যাশা ব্যক্ত করছেন। সেই সূত্র ধরে প্রত্যাশা ব্যক্ত করছেন আলেম সমাজও।



বাংলাবাজার মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আবুল কাশেম মোহাম্মদ ইয়াহইয়া বাইডেনের প্রতি নিজেদের প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করে এফএম-৭৮৬ কে বলেন, আমেরিকান ও মুসলমানদের অধিকার আদায়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেন কার্যকরী ভূমিকা রাখবেন বলে আশা করছি। তাছাড়া আমরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করতে চাই। তাই কমিউটিনির শান্তি-শৃঙ্খলার দিকে তিনি মনোযোগ দিবেন বলে আশা করছি।


নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কাছে কী প্রত্যাশার করছেন? তা জানিয়ে লেখক, কলামিস্ট আসলাম আহমাদ খান বলেন, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে জনগণের কী প্রত্যাশা তা সম্পর্কে আমার ধারণে মতে সবচেয়ে বেশি অবহিত আছেন প্রেসিডেন্ট নিজেই। কেননা তিনি রাজীনীতির সিড়ি বেয়ে একটি সাধারণ পরিবার থেকে উঠে এসে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। তাই তাকে আর সাধারণ মানুষের দাবিগুলো স্মরণ করিয়ে দিতে হবে বলে মনে করি না। কেননা তিনি জানেন কীভাবে কাজ করলে শান্তি বজায় থাকবে। শৃঙ্খলা সমৃদ্ধ হবে।


আইটি স্পেশালিস্ট সৈয়দ এম আলম নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের কাছে প্রত্যাশা প্রকাশ করে বলেন, সর্বপ্রথম কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিনেশনের প্রতি তিনি মনোযোগ দিবেন বলে আশা করছি। পাশাপাশি বিশ্বের প্রতিটি দেশের নাগরিকদের আস্থা অর্জন ও সমৃদ্ধ আমেরিকা গঠনে কাজ করবেন তিনি। মনোযোগী হবেন বলে আশা করছি অর্থনৈতিক দিকেও। 


নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের কাছে প্রত্যাশা প্রকাশ করে লেখক,  সম্পাদক ও আলেম সাংবাদিক মাওলানা ওবায়দুর রহমান খান নদভী বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে চালানো নির্বাচনী প্রচারণায় বাইডেন অভিবাসীদের প্রতি সহনশীল আচরণের আভাস দিয়ে আসছেন। এছাড়া মার্কিন অভিবাসন নীতি সংস্কার ও দেশটিতে এক কোটির বেশি অনিবন্ধিত অভিবাসীর নাগরিকত্বের প্রক্রিয়ার জন্য কংগ্রেসে বিল পাঠানো হয়েছে। তাই প্রত্যাশা করবো বাইডেন শাসিত আগামীর যুক্তরাষ্ট্র অভিবাসীদের চিন্তার কারণ হবে না।


লেখক, সম্পাদক ও আলেম সাংবাদিক মুফতি হুমায়ুন আইয়ুব বাইডেনের প্রতি নিজেদের প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করে এফএম-৭৮৬ কে বলেন, ট্রাম্পের শাসনামলে যুক্তরাষ্ট্র তথা গোটা বিশ্বের মুসলমানরা একটা অজানা সঙ্কায় বাস করতো। কেননা এসে ক্ষমতায় আসার কিছুদিনের মধ্যেই সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। যা ছিল চরম বৈষম্যের আচরণ। সচেতন ব্যক্তিত্বের অধিকারী জো বাইডেন ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন যেমন সচেতনতার পরিচয় দিয়েছেন। আশাকরি সে ধারা অব্যাহত রাখবেন।


এছাড়া প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করে লেখক, গবেষক মুফতি রেজাউল করীম আবরার বলেন, মুসলিমদের ওপর দেয়া ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পাশাপাশি ফিলিস্তিন ইস্যূতে সুনির্দিষ্ট সমাধানের আশা করছি নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে। তাছাড়া বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় অনবদ্ধ কাজের ধারাবাহিকতায় রক্ষা করবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

 

আপনার মতামত লিখুন :